সোমবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

চুলায় পিৎজা বানানোর সহজ পদ্ধতি

জীবন যাপন জানুয়ারি ১৯, ২০২৩, ০৯:০৫ পিএম
চুলায় পিৎজা বানানোর সহজ পদ্ধতি

পিৎজা খেতে তো ছোট-বড় সবাই পছন্দ করেন। বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় ফাস্টফুড আইটেমের মধ্যে পিৎজা অন্যতম। সাধারণত বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট কিংবা পিৎজা হাউজ থেকেই কিনে খাওয়া হয় এই লোভনীয় খাবার।

আবার অনেকে শখের বশে ঘরেও তৈরি করেন। বেশ ঝক্কির কাজ পিৎজা তৈরি করা। আবার উপকরণও লাগে অনেক। তবে কম সময়ে ও অল্প উপকরণে যদি পিৎজা তৈরি করতে চান তাহলে স্বাদ নিন সসেজ কার্নিভাল পিৎজার। রইলো রেসিপি-

উপকরণ

১. ময়দা ৩ কাপ
২. চিনি ১ টেবিল চামচ
৩. গুঁড়া দুধ আধা কাপ
৪. লবণ স্বাদমতো
৫. তেল আধা কাপ
৬. ইস্ট ১ টেবিল চামচ
৭. ডিম ১টি
৮. লিকুইড দুধ কুসুম গরম ও
৯. পানি পরিমাণমতো।

পদ্ধতি

প্রথমে তেলসহ উপরের শুকনো উপকরণগুলো একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণে ডিম মিশিয়ে এরপর দুধ দিয়ে মেখে একটি শক্ত ডো তৈরি করুন।

অনেকটা পরোটার মতো ডো হবে। অনেকক্ষণ ধরে ডো ময়ান দিন। যেন চিনি গলে ডো নরম হয়ে যায়। এবার একটি বাটিতে ডো রেখে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে গরম জায়গায় রেখে দিন ২-৩ ঘণ্টা অথবা ডো ফুলে ওঠা পর্যন্ত।

ডো ফুলে দ্বিগুণ হলে বুঝতে হবে পিৎজা তৈরির জন্য ডো তৈরি হয়ে গেছে। এবার কিছুটা ডো নিয়ে হালকা করে বেলে মোটা রুটি বানিয়ে নিন। অন্যদিকে একটি স্টিলের প্লেটে তেল ব্রাশ করে এর উপর রুটি রাখুন।

কাটা চামচ দিয়ে রুটির মাঝখানে একটু একটু করে গেঁথে দিন। তাতে পিৎজা ভালো হবে ও মাঝখানে অতিরিক্ত ফুলে যাবে না। এবার টমেটো সস রুটির ওপর ভালো করে লাগিয়ে দিন।

তারপর আপনার পছন্দমতো টপিং দিন। আর উপরে চিজ দিয়ে দিন। চুলায় বড় পাতিল অথবা কড়াই বসিয়ে তাতে বালু বা লবণ দিতে হবে। তার ওপর একটি পাতিল রাখার স্ট্যান্ড রাখতে হবে।

স্ট্যান্ডের ওপর এবার পিৎজার প্লেট রেখে একটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। খেয়াল রাখবেন যেন ঢাকনার ফাঁকা দিয়ে বাতাস বের হতে অথবা ঢুকতে না পারে।

১০-১৫ মিনিট রেখে ঢাকনা সরিয়ে যদি দেখেন চিজ গলে গেছে পিৎজা ফুলে উঠেছে তাহলে বুঝবেন পিৎজা তৈরি হয়ে গেছে। তখনই চুলা থেকে নামিয়ে নিন সসেজ কার্নিভাল পিৎজা।

Side banner