রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

নখ ভেঙে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার

জীবন যাপন আগস্ট ১০, ২০২৩, ০৩:১৭ পিএম
নখ ভেঙে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার

হাত-পায়ের নখ ভেঙে যাওয়া অনেকেরই একটি প্রধান সমস্যা। শিশু থেকে বৃদ্ধ সবারই এই সমস্যাটি হয়ে থাকে। সাধারণত সঠিক পুষ্টি ও যত্নের অভাবে নখ ভেঙে যায়। তাই নিয়ম মেনে সচেতন থাকতে হবে। একইসঙ্গে সঠিক চিকিৎসা নিতে হবে।

নখ ভাঙার কারণ

  • নখে মাত্রা চেয়ে বেশি প্রসাধনী ব্যবহার করলে উজ্জ্বলতা নষ্ট হয়ে নখ ভেঙে যায়।
  • এসিটোনসমৃদ্ধ প্রসাধনীর (নেইলপলিশ তুলে ফেলার জন্য ব্যবহৃত হয়) মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার নখকে নষ্ট করে দেয়। তাই নেইলপলিশ যত কম ব্যবহার করা যায়, ততই ভালো। 
  • অনেকেরই দাঁত দিয়ে নখ কামড়ানোর অভ্যাস থাকে, এটাও নখ ভেঙে যাওয়ার অন্যতম কারণ।
  • অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, ফাঙ্গাল ইনফেকশনের কারণেও নখ ভাঙতে পারে।
  • বারবার যাদের পানিতে হাত ভেজাতে হয়, তাদেরও নখ ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে খুব বেশি।
  • যারা অতিরিক্ত তাপের মধ্যে কাজ করেন, অর্থাৎ নখে বারবার আগুনের তাপ লাগে, তাদেরও নখ ভাঙতে পারে।

পরিত্রাণের উপায়

  1. নিয়মিত সব ধরনের মৌসুমি শাকসবজি, ফল খেতে হবে। একেক রঙের সবজি ও ফলের মধ্যে একেক ধরনের পুষ্টি থাকে।
  2. অতিরিক্ত হাত ধুতে হয় যাদের, তাদের হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহার করতে হবে।
  3. দুধ, ডিম, পনির, মৌসুমি ফল, শাকসবজি, মাংস, সামুদ্রিক মাছ আর সূর্যের তাপে থাকে ভিটামিন ডি। রক্তে ভিটামিন ডির অভাবে নখ, চুল, হাড়, দাঁত দুর্বল হয়ে যায়। তাই নিয়ম করে রোদে থাকতে হবে।
  4. গর্ভাবস্থায় ও শিশুকে খাওয়ানোর সময় অনেক নারীর শরীরে আয়রন, আয়োডিনসহ বহুবিধ খনিজ লবণের ঘাটতি দেখা যায়। এই ঘাটতির জন্যও নখ ভেঙে যায়। গর্ভাবস্থার শুরু থেকে সন্তান বড় হওয়া পর্যন্ত একজন নারীকে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে।
  5. হঠাৎ নখের কোনো অংশে হলুদাভ, কালচে দাগ দেখা দিলে এবং মাংসপেশি থেকে নখ উঠে যেতে থাকলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
Side banner