বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সেলুলাইটিস: কারণ ৫টি প্রাথমিক লক্ষণ ও পরামর্শ

জীবন যাপন নভেম্বর ২৩, ২০২২, ০৮:৪৩ পিএম
সেলুলাইটিস: কারণ ৫টি প্রাথমিক লক্ষণ ও পরামর্শ
সেলুলাইটিস-Cellulities

সেলুলাইটিস একটি ব্যাকটেরিয়াজনিত ত্বকের সংক্রমণ যা বেশ সাধারণ কিন্তু খুবই গুরুতর। এটি সাধারণত নীচের পায়ের অংশে দেখা যায় তবে এটি শরীরের যে কোনও অংশকে প্রভাবিত করতে পারে। আক্রান্ত ত্বক লাল, ফোলা, উষ্ণ এবং স্পর্শ করলে খুবই বেদনাদায়ক অনুভূত হয়। ত্বকের একটি ফাটা অংশ যদি ব্যাকটেরিয়াকে প্রবেশ করতে দেয়, তবে তা এই সংক্রমণের দিকে পরিচালিত করে।

এটি এমন কোন সংক্রমণ নয় যার চিকিৎসা না করলেও সমস্যা হবে না। এটি সহজেই আপনার রক্তপ্রবাহ অনুসরণ করে লসিকা গ্রন্থিগুলিতে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

সেলুলাইটিসের কারণ কী?
সেলুলাইটিস ঘটে যখন ব্যাকটেরিয়া (সাধারণত স্ট্যাফিলোকক্কাস এবং স্ট্রেপ্টোকক্কাস) আপনার ত্বকের কোন ছিঁড়ে যাওয়া বা ফাটল দিয়ে প্রবেশ করে। যদিও সেলুলাইটিস শরীরের যে কোনও জায়গায় ঘটতে পারে, তবে সাধারণ ভাবে পরিচিত অঞ্চল হল নীচের দিকের পায়ের অংশ। ব্যাকটেরিয়াগুলি বিঘ্নিত ত্বকের জায়গাগুলি দিয়ে প্রবেশ করার সম্ভাবনা বেশি, যেমন আপনার সম্প্রতি একটি অস্ত্রোপচার হওয়া জায়গা, খোঁচার দ্বারা সৃষ্ট ক্ষত, কাটা জায়গা, আলসার, ডার্মাটাইটিস বা অ্যাথলেটিস পা। পশুর কামড় থেকেও সেলুলাইটিস হতে পারে। এছাড়াও, আঁশযুক্ত, শুষ্ক, ত্বক বা ফোলা ত্বকের জায়গা দিয়েও ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করতে পারে

সেলুলাইটিসের লক্ষণগুলি কী কী?
সেলুলাইটিসের দুটি স্তর রয়েছে। প্রথমটি হল যখন সংক্রমণ প্রথম শুরু হয় এবং দ্বিতীয়টি হল যখন এটি ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। মনে রাখবেন এটি আপনার শরীরের যেকোনো অংশে ঘটতে পারে। এটি ক্ষত, ক্ষতিগ্রস্ত ত্বক, কাটা বা এমনকি আঁচড়গুলির আশেপাশেও এটা ঘটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

প্রথম পর্যায়ের ৫টি প্রাথমিক লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে:

১. আশেপাশের এলাকার লালভাব

সংক্রমণ প্রথম শুরু হলে, এলাকাটি লাল হয়ে যাবে। আপনি এমনকি সংক্রামিত এলাকার চারপাশে লাল দাগ তৈরি হতে শুরু হয়েছে দেখতে পাবেন। এটি আপনার সেলুলাইটিসের প্রথম লক্ষণ। অবস্থা খারাপ হওয়ার আগে তখনই আপনাকে চিকিৎসা ব্যবস্থার সহায়তা নিতে হবে। ত্বকের এই লাল অংশটি আরোও প্রসারিত হতে থাকবে।

২. আক্রান্ত স্থান ফুলে যাওয়া: সংক্রমণের চারপাশের এলাকা ফুলে যায়। এটি ত্বকের নিচে প্রদাহ বা তরল জমা হওয়ার ফলাফল।

৩. সংক্রমিত এলাকা স্পর্শে উষ্ণতা অনুভব: সংক্রমণের অবস্থা আরো খারাপ হওয়ার সাথে সাথে এর চারপাশের এলাকা স্পর্শ করলে উষ্ণতা অনুভব করবেন। এটি একটি স্পষ্ট ইঙ্গিত যে সংক্রমণটি ছড়িয়ে পড়ছে এবং আপনার চিকিৎসা সহায়তা প্রয়োজন। এটি যখন স্পর্শ করবেন তখন সংক্রামিত এলাকার তাপমাত্রা আপনার ত্বকের বাকি অংশের তুলনায় কিছুটা বেশি থাকবে।

৪. এলাকাটি স্পর্শ করলে বেদনার অনুভূতি: পরবর্তী ধাপ হবে যে, এলাকাটি স্পর্শ করা বেদনাদায়ক হয়ে উঠবে। ক্ষতের চারপাশের পুরো অংশে আপনার ত্বকের বাকি অংশের তুলনায় বেশি সংবেদনশীলতা থাকবে। এমনকি একটি মৃদু স্পর্শও আপনার ব্যথার কারণ হতে পারে কারণ এলাকাটি এখন খুবই সংবেদনশীল থাকবে।

৫. পুঁজ জমা হওয়া বা স্বচ্ছ বা হলুদেটে তরল চুঁইয়ে পড়া: কিছু ক্ষেত্রে, আপনি স্বচ্ছ বা হলুদেটে তরল জমা হওয়া বা  চুঁইয়ে পড়া লক্ষ্য করবেন। এটি পুঁজ যা সংক্রমণের কারণে গঠিত হয়..

আপনি যদি নিম্নলিখিত লক্ষণগুলি দেখতে পান তবে আপনার অবিলম্বে সাহায্য নেওয়া উচিত। এর মধ্যে রয়েছে:

* জ্বর বা সর্দি
* সংক্রমিত স্থান ফুলে যাওয়া এবং শক্ত হয়ে যাওয়া
* সংক্রামিত এলাকার চারপাশে ব্যথা
* টিপলে আক্রান্ত এলাকার চারপাশে অসাড়তা অনুভব
* যদি উপরে উল্লিখিত উপসর্গগুলির মধ্যে কোন একটিও রোগীর মধ্যে দেখা দিতে শুরু করে, তাহলে তাদের একটি জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দেরি হলে এই সংক্রমণ প্রাণঘাতী হয়ে উঠতে পারে।

অনেক কারণ সহজেই আপনাকে সেলুলাইটিস হওয়ার ঝুঁকিতে ফেলতে পারে। তাদের মধ্যে কয়েকটি নিম্নরূপ তালিকাভুক্ত করা হয়েছে:

* কোন আঘাত: এটি সেলুলাইটিসের সবচেয়ে সাধারণ কারণ। যখন আপনি আপনার ত্বকের ভেঙ্গে যাওয়া অংশে কোন  আঘাত পাবেন, তখন এটি ব্যাকটেরিয়াকে শরীরে এবং রক্তপ্রবাহে প্রবেশ করার সুযোগ করে দেবে। এটি একটি আঘাত, সাম্প্রতিক অস্ত্রোপচার, পোড়া বা কাটার কারণে হতে পারে।
 দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকা: আপনার যদি দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকে, তাহলে আপনার সেলুলাইটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এটি এমন লোকেদের ক্ষেত্রেও হয় যারা এমন কিছু চিকিৎসার সমস্যায় ভুগছেন যা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল করে দেয় যেমন লিউকেমিয়া, এইচআইভি/এইডস, ডায়াবেটিস ইত্যাদি।
*  স্থূলতা: আরেকটি সাধারণ কারণ হল স্থূলতা, যা আপনার সেলুলাইটিস হওয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে।
 আগে থেকে থাকা ত্বকের রোগ: আপনার যদি আগে থেকে ত্বকের রোগ থাকে, তাহলে আপনার সেলুলাইটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে। অ্যাথলিটস পা, একজিমা বা শিঙ্গলসের মতো ত্বকের রোগ আপনার ত্বককে আক্রমণ করতে পারে। এই ভাঙ্গা বা কাটাগুলি দিয়ে সহজেই আপনার শরীরে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করতে পারে, যা শীঘ্রই সেলুলাইটিসে পরিণত হবে।
* আপনার যদি সেলুলাইটিস হয়ে থাকে: আপনি যদি আগেও সেলুলাইটিস রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার আবার এটি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

কীভাবে সেলুলাইটিসের চিকিৎসা করবেন?

যখন আপনি আপনার সেলুলাইটিসের চিকিৎসা করবেন, তখন আপনার ডাক্তার উপযুক্ত ওষুধ নির্ধারণের জন্য কিছু পরীক্ষা চালাবেন। এগুলি সাধারণত অ্যান্টিবায়োটিকই হয়ে থাকে যা আপনার বর্তমান সংক্রমণ নিরাময় করবে।

কীভাবে নিশ্চিত করবেন যে ত্বকের ক্ষত যেন সেলুলাইটিসের দিকে অগ্রসর না হয়?

আপনার ক্ষত পরিষ্কার রাখুন: আপনার যদি কাটা বা ক্ষত থাকে তবে সর্বোত্তম পদক্ষেপ হল এটি পরিষ্কার রাখা। স্নান করার সময়, আপনি সাবান দিয়ে ক্ষত পরিষ্কার করতে পারেন।

একটি মলম ব্যবহার: অনেক মলম এবং ক্রিম আছে যা আপনি একটি খোলা মুখের কাটা বা ক্ষতের উপর প্রয়োগ করতে পারেন। এগুলি ক্ষতকে সুরক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি নিরাময়ের সময় কমাতেও সাহায্য করে। এটি একটি সুরক্ষা স্তর তৈরি করে যার মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়া ভিতরে প্রবেশ করতে পারে না।

একটি ব্যান্ডেজ ব্যবহার করা: আপনার যখন একটি কাটা বা ক্ষত হয়, সর্বোত্তম পদক্ষেপ হল এটি ঢেকে রাখা। এটি কোন ব্যাকটেরিয়াকে ভিতরে প্রবেশ করতে বাধা দেবে। এটি পরিবেশ দূষণকারী উপাদান থেকেও আপনার ক্ষতকে রক্ষা করবে। এটি ক্ষতকে শুষ্ক ও নিরাপদ রাখবে। তবে প্রতিদিন ব্যান্ডেজ পরিবর্তন করুন।

ব্যথা, ফোলা, পুঁজ বা লালচে অংশের প্রসারিত হওয়ার মতো অগ্রগতির লক্ষণগুলিতে গভীর নজর রাখা।

* কীভাবে সেলুলাইটিস প্রতিরোধ করবেন

* সেলুলাইটিস সংক্রমণ প্রতিরোধ করার উপায় রয়েছে।

* আপনার পা নিরাপদ রাখুন: সর্বদা আপনার পা এবং পায়ের চারপাশে আঘাত লেগেছে কিনা তা পরীক্ষা করুন। যদি আপনি একটি ক্ষত বা কাটা লক্ষ্য করে থাকেন তবে, প্রথমে এটি পরিষ্কার করতে ভুলবেন না, তারপর ওষুধ প্রয়োগ করুন।

* আপনার ত্বককে আর্দ্র রাখুন: এটি এমন একটা পদ্ধতি যা আপনার ত্বকের শক্তি বাড়াবে এবং এটিকে খোসা ওঠা বা ফাটল হওয়া থেকে রোধ করবে। একটি ভাল ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে তা আপনার ত্বককে নরম রাখবে এবং সহজে কাটা বা আঁচড় লাগার সম্ভাবনা কমবে। তবে খোলা ঘাগুলিতে ময়েশ্চারাইজ ব্যবহার করবেন না

* অবিলম্বে সাহায্য পান: যখনই আপনি শরীরে একটি কাটা বা ক্ষত দেখবেন অবিলম্বে তার চিকিৎসা নিশ্চিত করুন। এটি সংক্রমণকে ছড়াতে যেমন বাধা দেবে তেমনই উপসর্গগুলি আরও খারাপ হওয়ার হাত থেকেও রক্ষা করবে।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

প্র. সেলুলাইটিস অন্য কোন চিকিৎসাজনীত অবস্থার কারণ হতে পারে?

উ: একটি সেলুলাইটিস সংক্রমণ সহজেই অন্যান্য চিকিৎসা পরিস্থিতি যেমন সেপসিস, নেক্রোটাইজিং ফ্যাসাইটিস, অ্যাবসেস ইত্যাদির দিকে নিয়ে যেতে পারে৷ এই সমস্ত বিপজ্জনক অবস্থা সহজেই আপনার জীবনের ঝুঁকি অনেকটা বাড়িয়ে দিতে পারে৷ সেলুলাইটিস সংক্রমণের তাই সময়মত চিকিৎসা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

প্র. সেলুলাইটিস প্রতিরোধ করার জন্য কি কোন খাদ্য আছে?

উ: সেলুলাইটিস প্রতিরোধের জন্য কোনো নির্দিষ্ট খাদ্য না থাকলেও, কম অস্বাস্থ্যকর চর্বি এবং পরিশ্রুত খাবার সহ একটি সুষম এবং স্বাস্থ্যকর খাদ্য আপনাকে ডায়াবেটিস, স্থূলতা ইত্যাদি প্রতিরোধ করতে সাহায্য করতে পারে। এই ডায়াবেটিস, স্থূলতাই সেলুলাইটিসের জন্য উচ্চ ঝুঁকি তৈরি করে।

প্র. সেলুলাইটিসের কারণে কী কী জটিলতা দেখা দিতে পারে?

উ: উপেক্ষা করলে এই সংক্রমণ প্রাণঘাতী হয়ে উঠবে। যদি এর চিকিৎসা না করা হয়, তবে সংক্রমণটি সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে মেনিনজাইটিস এবং একাধিক অঙ্গের কার্যকারিতা নষ্ট করার মতো অন্যান্য সংক্রমণের দিকে নিয়ে যেতে পারে। ডায়াবেটিস রোগীর সেলুলাইটিস গ্যাংগ্রিন হতে পারে, যার ফলে আক্রান্ত ব্যক্তির অঙ্গহানিও হতে পারে।

সূত্র: অ্যাপোলো হেলথ অনলাইন

আরও পড়ুন

Side banner