সোমবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

ইউএনও হতে হলে যেসব শর্ত পূরণ করতে হবে

জীবন যাপন ডিসেম্বর ২৬, ২০২২, ০৯:৪৪ পিএম
ইউএনও হতে হলে যেসব শর্ত পূরণ করতে হবে

সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদে চাকরির অভিজ্ঞতা না থাকলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হিসেবে পদায়ন করা হবে না। ইউএনও হিসেবে পদায়নে প্রয়োজন পড়বে পাঁচ বছরের এসিআর ও শৃঙ্খলার বিষয়ে সন্তোষজনক প্রতিবেদন। এমন বিধান রেখে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন কর্মচারীদের পদায়ন নীতিমালা ২০২২ জারি করা হয়েছে।

রবিবার (২৫ ডিসেম্বর) সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত গেজেট প্রকাশ করা হয়। এর আগে ৪ ডিসেম্বর এই নীতিমালার প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। সহকারী কমিশনার, সহকারী কমিশনার (ভূমি), সিনিয়র সহকারী কমিশনার, ল্যান্ড অ্যাকুইজিশন অফিসার/ডেপুটি কালেক্টর, জেলা পরিষদের সচিব/ক্যান্টনমেন্ট এক্সিকিউটিভ অফিসার/পৌরসভার নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, উপপরিচালক স্থানীয় সরকার/জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা/জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার, জেলা প্রশাসক, পরিচালক স্থানীয় সরকার/অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার, বিভাগীয় কমিশনার পদে পদায়নে এই নীতিমালা তৈরি করা হয়েছে। এর আগে পৃথক দুটি নীতিমালায় এসব পদে পদায়ন করা হতো।

নতুন নীতিমালায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদে পদায়নের চাকরির মেয়াদ তিন বছর, নির্ধারিত প্রশিক্ষণসম্পন্ন করা ও চাকরি স্থায়ীকরণের কথা বলা হয়েছে। এর আগের নীতিমালায় চাকরির মেয়াদ দুই বছর হওয়ার বিধান ছিল। নতুন নীতিমালায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে প্রথমে খ ও গ শ্রেণির উপজেলায় (জেলা সদর ও মহানগরের বাইরে) পদায়ন করা হবে। এক বছর দায়িত্ব পালনের পর দক্ষতা, সততা ও জনসেবার বিষয়টি যাচাই করে ক শ্রেণির উপজেলা/রাজস্ব সার্কেলে পদায়ন করা যাবে।

নীতিমালায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদে সিনিয়র স্কেল প্রাপ্তি ও চাকরির বয়স কমপক্ষে ছয় বছর পূর্ণ হতে হবে। সর্বশেষ পাঁচ বছরের বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদন (এসিআর), সার্ভিস রেকর্ড ও শৃঙ্খলাজনিত প্রতিবেদন সন্তোষজনক হতে হবে। এক্ষেত্রে চাকরিকালের সততা ও সুনাম বিবেচনা করা হবে। বিবেচ্য পাঁচ বছরের এসিআরে গড় নম্বর ন্যূনতম ৮৫ শতাংশ নম্বর থাকতে হবে। এসি ল্যান্ড পদে কমপক্ষে এক বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ইউএনও পদায়নে আগের নীতিমালায় চাকরির বয়স ছয় বছরের বাধ্যবাধকতা থাকলেও পাঁচ বছরের এসিআর ও এসি ল্যান্ড হিসেবে এক বছর চাকরির বাধ্যবাধকতা ছিল না।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পদে পদায়নে ইউএনও পদে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা ও আট বছর চাকরিকাল পূর্ণ হওয়া, পাঁচ বছরের এসিআরের গড় নম্বর ৮৫ শতাংশ থাকা ও শৃঙ্খলা বিষয়ক প্রতিবেদন সন্তোষজনক হওয়ার কথা বলা হয়েছে।

এছাড়া জেলা প্রশাসক পদে পদায়নে উপসচিব পদে পদোন্নতি প্রাপ্তির বছর অতিক্রম সাপেক্ষে ফিট লিস্ট প্রণয়ন করা হবে। এ পদে পদায়নে উপপরিচালক, স্থানীয় সরকার/অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক/সচিব, জেলা পরিষদ/প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, পৌরসভা এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার উভয় পদে কমপক্ষে দুই বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা; পূর্ববর্তী পাঁচ বছরের এসিআর এবং পুরো চাকরি জীবনের শৃঙ্খলা প্রতিবেদন সন্তোষজনক হতে হবে। প্রকল্প ও ক্রয় ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত জ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সম্পর্কে সম্যক ধারণা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয় সম্পর্কে জ্ঞান এবং বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা থাকতে হবে। ম্যাজিস্ট্রেসি ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন হতে হবে।

এদিকে নীতিমালা অনুযায়ী বিভাগীয় কমিশনার পদে পদায়নে জেলা প্রশাসক পদের কর্মে অভিজ্ঞতার বাধ্যবাধকতার কথা বলা হয়েছে।

নীতিমালা অনুযায়ী প্রশাসনিক কারণ ছাড়া মাঠপ্রশাসনে কমপক্ষে পাঁচ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা না থাকলে মন্ত্রণালয়/দফতর/বিভাগে পদায়ন করা যাবে না।

Side banner